কত দিন মাসিক না হলে গর্ভবতী হয়

300.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন

570 in stock

Description

 কত দিন মাসিক না হলে গর্ভবতী হয় , প্রিয় পাঠক আজকের আর্টিকেলটিতে আমরা আলোচনা করব কতদিন মাসিক না হলে গর্ভবতী হয় সেই সম্পর্কে  এটি মহিলাদের জন্য জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ  তাই আমাদের কাছে যারা জানতে চেয়েছেন কত দিন মানসিক নাহলে গর্ভবতী হয় এ সম্পর্কে তারা অবশ্যই আমাদের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে করবেন তাহলে চলুন জেনে নেওয়া  যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন । পুরুষের ও মেয়েদের সে- ক্স বৃদ্ধি করার ভেষজ  ঔষধ কিনতে ক্লিক করুন – এখনি কিনুন 

কত দিন মাসিক না হলে গর্ভবতী হয়

আপনার মাসিক যদি নিয়মিত হয়, তাহলে মিলনের পরবর্তী মাসে মাসিক মিস করলে আপনি গর্ভবতী।  নিশ্চিত হওয়ার জন্য মাসিক মিস করার দশ দিন পর প্রেগনেন্সি টেস্ট করবেন। যদি নেগেটিভ আসে, তাহলে পাঁচ দিন অপেক্ষা করে আবার টেস্ট করবেন। তারপরও যদি পজিটিভ না আসে তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। আরো পড়ুন: ছেলেদের মেয়েদের কন -ডম গুপ্ত –  স্থান মেয়েদের পু -শি  কিনতে – এখনই কিনুন

নিয়মিত মাসিক হয় তাদের ক্ষেত্রে: সাধারণত মাসিক মিস হওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যে ৯০ শতাংশ মহিলাদের গর্ভধারণের লক্ষণ গুলো দেখা দিতে পারে। অনেকের হয়তো এর আগেও বোঝা য়ায়। কিন্তু প্রেগনেন্সির সম্পূর্ণ লক্ষণ প্রকাশ পেতে ৬ থেকে ৮ সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে। তবে পিরিয়ড মিস হওয়া ছাড়াও গর্ভধারণের আরো অনেক লক্ষণ রয়েছে।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ হিসেবে ধরা হয় মর্নিং সিকনেস। তবে এটা রাতেও দেখা দিতে পারে। এতে করে নারীরা শরীরে প্রচন্ড দুর্বলতা অনুভব করে। প্রচন্ড পরিমাণে মাথা ঘুরায়। মর্নিং সিকনেস দেখা যায় সাধারণত গর্ভধারণের এক মাস পর থেকে৷

মাসিক বন্ধ হওয়ার মানেই কি গর্ভবতী

মাসিক বন্ধ হওয়ার কতদিন পর প্রেগন্যান্ট বোঝা যায়? এ প্রশ্নের উত্তর আসলে একজনের জন্য একেক রকম হয়ে থাকে৷ কারো মাসিক বন্ধ হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে লক্ষণ প্রকাশ পেতে শুরু করে৷ কারও দুই মাস চলে যায় কিন্তু কোনো লক্ষণ দেখা যায় না৷

  1. গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ কত দিন পর বোঝা যায়

    গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ গুলো গর্ভধারণের ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে শুরু হয় এবংসময়ের সাথে সাথে লক্ষণগুলো পরিবর্তন হতে থাকে।

  2. গর্ভধারণের ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে অনেক নারীর স্তন নরম হয়ে যাওয়া, স্তন ভারী অনুভুত কিংবা স্তনে হাল্কা ব্যাথা অনুভব করতে শুরু করে।
  3. গর্ভধারণের ৩০ দিনের মধ্যে যে লক্ষণ দেখা দেয়, তাহল বমি বমি ভাব। সকালে কিংবা দিনের যেকোনো সময় বমি ভাব হয়। গর্ভধারণের পর শরীরের ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেস্টেরন হরমোন বৃদ্ধি পায়। এজন্যই এই বমি-বমি ভাব বা বমি হয়।
  4. খাদ্যাভ্যাসের স্বাদ পরিবর্তন ।
  5. জ্বর ও পেটব্যথা।
  6. কোষ্ঠকাঠিন্য।
  7. ভ্যাজাইনাল ডিসচার্জ।

 

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “কত দিন মাসিক না হলে গর্ভবতী হয়”

Your email address will not be published. Required fields are marked *