বাসর ঘরে ভালোবাসা

300.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন

570 in stock

Description

বাসর ঘরে ভালোবাসা , বিয়ের প্রথম রাত মানে বাসর রাত ব্যাপার টার প্রতি আমার অনেকদিন এর ইন্টারেস্ট। নতুন বিয়ে করা স্বামী স্ত্রী জিবনে প্রথম বারের মতো একই ঘরে একসাথে থাকে, কিভাবে প্রথম কথা বলা শুরু করে কিভাবে কি হয় এইসব জানতে আমার প্রচুর আগ্রহ।  তাহলে চলুন দেরি না করে এখনি এ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন ।Gazivai.com এ মেয়েদের ডায়াপার ও ন্যাপকিন ৮০ টাঁকা মাত্র কিনতে কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

  বাসর ঘরে ভালোবাসা 

প্রত্যেকটি মানুষের জীবনে বাসর রাত একটি উল্লেখযোগ্য রাত এবং এই রাত নিয়ে অনেকেরই বিভিন্ন ধরনের জল্পনা এবং কল্পনা থেকে থাকে। এই রাত নিয়ে অনেক নারী যেমন হাজারো গল্পের জাল গুনতে পারে তেমনি ভাবে একটি পুরুষ এই রাতের জন্য অনেক অপেক্ষা করতে থাকে। বিবাহ নামে অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যখন সামাজিক এবং ধর্মীয় স্বীকৃতির ভেতর দিয়ে একজন নর ও একজন নারী বসবাস করার সুযোগ পায় ।

তখন এই রাত হয়ে ওঠে একটি বিশেষ রাত যাদের মধ্য দিয়ে দুজনের ভেতরে শারীরিক এবং মানসিক মিলনের মধ্য দিয়ে আজীবনের জন্য একটি সেতুবন্ধন তৈরি হয়ে যায়। এই রাতের মধ্য দিয়েই রচিত হয় একটি সুন্দর গল্পের যে গল্পের মধ্য দিয়ে একটি পরিবার জন্ম নেয় এবং সেই পরিবারের মধ্য দিয়ে সুন্দর সুন্দর ভাবে মানুষগুলো সৃষ্টি হয়ে পৃথিবীর বুকে ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করার জন্য।

বাসর রাত। সবার জীবনে এই রাতটি নাকি অনেক স্বপ্নের, অনেক আশার। ওসব ভাবনার নিকুচি করে ‘বাসরীয়’ বাসনা নিয়ে সাজানো বাসর ঘরে ঢুকলাম। আহা! নতুন বউ কত না প্রশান্তি নিয়ে আমার জন্য অপেক্ষা করছে। আরো পড়ুন: ছেলেদের মেয়েদের কন -ডম গুপ্ত –  স্থান মেয়েদের পু -শি  কিনতে – এখনই কিনুন

দরজা খোলাই ছিল। ভেতরে প্রবেশের পরই লাগিয়ে দিলাম। মনে অন্যরকম অনুভূতি। নিজের ঘরটা নিজেই চিনতে পারছি না। যা সুন্দর করে সাজানো! ওরা পারে বটে- গাঁদাফুল দিয়ে সাজালেও গোলাপের সংখ্যা কম নয়, রজনীগন্ধাও আছে। তবে গোলাপের ঘ্রাণটাই প্রকট। ভ্রমর আসতে পারে বৈকি! মনে মনে হাসলাম- নিজেইতো ভ্রমর।

মন থেকে কিছুতেই এই ছটফটানি ভাবটা দূর করতে পারছি না। একবার ভাবলাম বাতিটা নিভিয়েই বিছানায় যাই! পরে চিন্তা করে দেখলাম- নাহ, দরকার নেই। মন বললো- ভদ্রতাই বংশের পরিচয়। পরিণয় বা প্রেমঘটিত বিয়ে হলে বোধকরি এতটা উত্তেজনা থাকতো না।

বিছানাটার দিকে তাকিয়ে আরো বেশি অবাক হলাম। পুরোটা ফুল দিয়ে ঢেকেছে ওরা। এমনকি বিছানায় প্রবেশের জন্যই ফুল দিয়ে আরেকটা দরজা বানিয়েছে। ভেতরে কে আছে বোঝার উপায় নেই।

বিছানার পাশে গিয়ে নতুন বউকে মধুর সুরে ডাকলাম- জেনিফা,জেনিফা। কোন সাড়া নেই। ভাবছি ঝট করে নির্লজ্জের মতো বিছানায় উঠে পড়া ঠিক হবে না। দুলাভাই যা শিখিয়ে দিয়েছেন সেই টিপস অনুযায়ী জেনেছি- বাসর ঘরে নববধূ স্বামীকে সালাম করে।

তাই আর বিছানায় ওঠা সমীচীন মনে করলাম না। ও নেমে এসে সালাম করবেই। আর আমিও থাক, থাক বলে ওর শরীর স্পর্শ করবো। বাকি কাজের প্রস্তুতি ওভাবেই নেব। নাহ, তবুও বের হয় না। আর কত প্রতীক্ষা- সারাদিনের ক্লান্তি নিয়ে বোধকরি বউ আমার বাসর ঘরেই ঘুমিয়ে পড়েছে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “বাসর ঘরে ভালোবাসা”

Your email address will not be published. Required fields are marked *